হারানো ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

হারানো ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

ভোটার আইডি কার্ড আমাদের জীবনে অতীব গুরুত্বপূর্ণ একটি জিনিস। বাংলাদেশের নাগরিক সেবা নিতে জাতীয় পরিচয় পত্র বা ভোটার আইডি কার্ড অবশ্যই প্রয়োজন৷ আমাদের দৈনন্দিন জীবনের নানান ব্যাস্ততায় ভোটার আইডি কার্ড হারিয়ে যায় বা নস্ট হয়ে যায়৷ যার ফলে হারানো ভোটার আইডি কার্ড তুলতে গিয়ে অনেকেই ভোগান্তির স্বীকার হয়৷ তবে এখন আর আপনাকে নির্বাচন অফিস গিয়ে ভোটার আইডি কার্ড রি ইস্যু আবেদন করতে হবে না। আপনি ঘরে বসে অনলাইন এর মাধ্যমেই আইডি কার্ড রিইস্যু ফি প্রদান করে হারানো এনআইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন৷ আজকে আমরা হারানো আইডি কার্ড বের করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানব। তো সম্পূর্ণ জানতে আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়ুন৷ 


হারানো আইডি কার্ড বের করার নিয়ম:

হারানো আইডি কার্ড ডাউনলোড করার জন্য প্রথমে আপনাকে এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে৷ সেখানে আপনি আপনার হারানো এনআইডি কার্ড নাম্বার বা ভোটার স্লিপ নাম্বার দিবেন৷ এরপর আপনার জন্ম তারিখ দিয়ে ক্যাপচা পূরন করবেন। এরপর আপনার বর্তমান ঠিকানা, স্থায়ী ঠিকানা, জেলা বিভাগ ইত্যাদি দিবেন৷ Nid Wallet অ্যাপসটি ডাউনলোড করে আপনার ছবি তুলবেন৷ এরপর হারানো আইডি কার্ড উত্তোলনের আবেদন ফরম পূরন করবেন৷ বিষয়গুলো অনেক জটিল মনে হচ্ছে না? সমস্যা নায় আপনাদের সুবিধার জন্য প্রতিটি বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা করা হবে৷ তবে তার আগে চলুন জেনে নি এনআইডি স্মার্ট কার্ড হারিয়ে গেলে করণীয় কি


এনআইডি স্মার্ট কার্ড হারিয়ে গেলে করণীয়

যদি আপনার ভোটার আইডি কার্ড হারিয়ে যায় অথবা নস্ট হয়ে যায় আর আপনি যদি রিইস্যুর জন্য আবেদন করতে চান তাহলে আপনার কিছু করনীয় কাজ রয়েছে৷ সেগুলো হলো 

  • ভোটার আইডি কার্ড হারিয়ে গেলে জিডি করা : 

আপনার ভোটার আইডি কার্ড হারিয়ে গেলে আপনার নিকটস্থ থানায় একটি সাধারন জিডি করুন৷

  • হারানো ভোটার আইডি কার্ডের নাম্বার বা ভোটার স্লিপ নাম্বার সংগ্রহ করা৷ 

  • Nid Card এর জন্ম তারিখ এবং ফেস ভেরিফিকেশন এর জন্য যিনার নামে আইডি কার্ড আছে তার উপস্থিতি। 


ধাপ-১ bdris ওয়েবসাইট এ ভিজিট

আপনার হারানো ভোটার আইডি কার্ডটি তুলতে সর্বপ্রথম এই লিংকে ক্লিক করুন৷ তাহলে আপনি bdris ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন৷ সেখানে আপনি আপনার হারানো ভোটার আইডি কার্ডের নাম্বার দিন৷ এরপর আপনার জন্ম তারিখ এবং ক্যাপচাটি পূরন করুন Save বাটনে ক্লিক করে আপনার বর্তমান ঠিকানা, স্থায়ী ঠিকানা ইত্যাদি দিন৷ 

হারানো ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড
হারানো ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড


ধাপ-২ বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা প্রদান 

Save বাটনে ক্লিক করার পর আপনাকে পরবর্তী পেজে নিয়ে যাবে সেখানে আপনি আপনার হারানো ভোটার আইডি কার্ড অনুযায়ী আপনার বর্তমান ঠিকনা দিন৷ শুরুতে আপনার NID Card এর বিভাগ, জেলা এবং উপজেলা সিলেক্ট করুন। ঠিক একই ভাবে আপনার স্থায়ী ঠিকানা দিন এরপর Continue বাটনে ক্লিক করুন। 


OTP প্রদান বা নাম্বার পরিবর্তন

Continue বাটনে ক্লিক করার পর আপনি ভোটার আইডি কার্ড লিখানোর সময় যে মোবাইল নাম্বার দিয়েছিলেন সেটি এখানে Show করবে৷ বর্তমানে যদি আপনার কাছে ওই নাম্বারটি না থাকে তাহলে নাম্বার পরিবর্তন করুন বাটনে ক্লিক করে আপনার নতুন নাম্বার দিন৷নাম্বার প্রদান শেষে "বার্তা পাঠান" বাটনে ক্লিক করুন তাহলে আপনার মোবাইল নাম্বার এ ওটিপি পাঠানো হবে। আপনার মোবাইল নাম্বার এ পাঠানো ওটিপি টি সাবমিট করুন৷ 


NiD Wallet Download 

গুগল প্লে স্টোরে গিয়ে সার্চ করুন NID Wallet লিখে। প্রথমে আসা অ্যাপস টি ডাউনলোড করুন৷ এর পর পূনরায় ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন৷ এরপর ওয়েবসাইটের লিংক এ ক্লিক করে Nid Wallet অ্যাপ্লিকেশন এ প্রবেশ করে আপনার ছবি তুলুন। ছবি সম্পূর্ণ Scan হয়ে যাবার পর আপনি আপনার ছবি সহ Nid Card টি দেখতে পাবেন৷ সেখানে আপনি দু'টি অপশন দেখতে পাবেন। একটি হলো "এড়িয়ে যান" এবং অপরটি হলো "সেট পাসওয়ার্ড"। আপনি সেট পাসওয়ার্ড এ ক্লিক করে ইউজার নেম এর জাইগায় আপনার ফোন নাম্বার দিতে পারেন অথবা কোনো কিছু না দিতেও পারেন।  একটি পাসওয়ার্ড সেট করুন এবং পাসওয়ার্ডটি পূনরায় লিখে আপডেট বাটনে ক্লিক করুন৷ 

Nid Wallet Download
Nid Wallet Download



আইডি কার্ড হারিয়ে গেলে জিডি স্ক্যান করার নিয়ম

আপনি যদি আপনার হারানো ভোটার আইডি কার্ড রিইস্যুর জন্য আবেদন করতে চান তাহলে আপনাকে সর্বপ্রথম আপনার নিকটস্থ থানায় একটি সাধারন জিডি করতে হবে৷ আপনার জিডি কপিটি অবশ্যই স্ক্যান করতে হবে কারণ রিইস্যু আবেদনের সময় জিডির স্ক্যান কপিটি আপলোড করতে হবে৷ জিডি কপি স্ক্যান করার জন্য আপনি প্লে স্টোর থেকে একটি স্ক্যানার অ্যাপস ডাউনলোড করুন এবং আপনার জিডি কপিটি স্ক্যান করুন৷ 


ভোটার আইডি কার্ড রি ইস্যু আবেদন

পাসওয়ার্ড আপডেট করার পর নিচের দিকে রিইস্যু নামে একটি অপশন আছে। সেখানে ক্লিক করুন৷ এর পর আপনি চারটি অপশন দেখতে পাবেন৷ এগুলো হলো

  • ইডিট

  • ট্রানজেশন 

  • জিডি কপি সাবমিট 

  • রিইস্যু আবেদন কপি সাবমিট 

নিম্নে প্রতিটি বিষয় বিস্তারিত বর্ণনা করা হলো : 


ইডিট 

রিইস্যু বাটনে ক্লিক করার পর আপনি সর্বপ্রথম ইডিট অপশন দেখতে পাবেন। সেখানে আপনি রিইস্যুর কারণ, জিডি নাম্বার এবং আপনার থানা সিলেক্ট করুন। আপনার জিডির কর্তব্যরত পুলিশ অফিসারের নাম, পদবী এবং জিডি আবেদনের তারিখ  লিখে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন। 


ট্রানজেশন 

রিইস্যু আবেদনের জন্য ভোটার আইডি কার্ড রিইস্যু ফি প্রদান করতে হবে৷ আইডি কার্ড রিইস্যু ফি ২৩০ টাকা প্রদানের পর আপনি পরবর্তী পেজে যেতে পারবেন৷ অন্যথায় যেতে পারবেন না৷ আইডি কার্ড রিইস্যু ফি প্রদান করা হয়ে গেলে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন। 


জিডি কপি সাবমিট

পরবর্তী বাটনে ক্লিক করার পর আপনি জিডি কপি সাবমিট এর অপশন পাবেন। সেখানে আপলোড অপশন এ ক্লিক করে আপনার স্ক্যানকৃত জিডি কপিটি এখানে আপলোড করুন৷ এরপর পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন।

নিশ্চিত করুন 

এরপর আপনি নিশ্চিত করুন অপশন এ যাবার পর সাবমিট বাটন দেখতে পাবেন। আপনি পূর্ববর্তী বাটনে ক্লিক করার পর আপনার আগের সব ইনফরমেশন দেখতে পাবেন৷ সেখান থেকে কোনো তথ্য ভুল হলে আপনি খুব সহজেই ইডিট করতে পারবেন৷ সব কিছু ঠিক থাকলে আপনি সাবমিট বাটনে ক্লিক করে আপনার ভোটার আইডি কার্ড রি ইস্যু আবেদন বা ভোটার কার্ড হারিয়ে যাওয়ার দরখাস্ত সম্পূর্ণ করতে পারবেন৷ 

ভোটার আইডি কার্ড রি ইস্যু আবেদন
ভোটার আইডি কার্ড রি ইস্যু আবেদন


শেষ কথা

হারানো ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড আর্টিকেলটি আপনাদের উপকারে এসেছে৷ আর্টিকেলটি আপনার টাইমলাইন এ শেয়ার করে রাখতে পারেন। যাতে করে আপনার পরিচিত মানুষের উপকার হয়৷ হারানো এনআইডি কার্ড ডাউনলোড করতে কোনো ধরনের সমস্যা হলে অবশ্যই কমেন্ট এ জানান৷ আপনাদের সহযোগীতার জন্য আমরা সার্বক্ষনিক সক্রিয়৷ আমাদের লিখা পড়তে গুগল নিউজে TechZone BD কে ফলো দিয়ে রাখতে পারেন৷ ভালো থাকবেন ধন্যবাদ। 

আরও জানুন 

ই পাসপোর্ট আবেদন 

ই পাসপোর্ট চেক ২০২৪

অপরিচিতা গল্পের mcq 

Realme C53 Price in Bangladesh 

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

টেক জোন বিডির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url