Nid Card Download || ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

Nid Card Download || ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড


জাতীয় ভোটার নিবদ্ধন করেছেন অনেক দিন হলো ,ছবিও তুলেছেন কিন্তু আপনার এনআইডি কার্ড টি হাতে পাননি? খুব সহজেই আপনি আপনার নতুন ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন ফর্ম নাম্বার/স্লিপ নাম্বার দিয়ে অথবা Bangladesh Nid Card Number দিয়ে। এর জন্য প্রয়োজন একটি মোবাইল যার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই NID online copy download করতে পারবেন । এছাড়াও আপনি হারিয়ে যাওয়া ভোটার আইডি কার্ড বা Nid Card Download করতে পারবেন। বাংলাদেশ নিৰ্বাচন কমিশন এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইট থেকে মাত্র কয়েক মিনিটে আপনার অতীব গুরত্বপূর্ন জিনিসটি ডাউনলোড করতে পারবেন । কীভাবে Nid Card Download করবেন তা জানতে পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন ।

 

Nid Card Download||জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করার নিয়ম

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার জন্য জাতীয় নির্বাচন কমিশন এর সরকারি ওয়েবসাইট এ ভিজিট করুন। https://services.nidw.gov.bd/nid-pub এই লিঙ্ক এ ক্লিক করুন। Nid Card Download করার জন্য লিঙ্ক এ ক্লিক করার পর রেজিস্ট্রার করুন বাটন এ ক্লিক করেন । তারপর জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর/ফর্ম নম্বর ,জন্ম তারিখ এবং ছবিতে প্রদর্শিত কোডটি লিখুন । এরপর সাবমিট বাটন এ ক্লিক করুন। এরপর পূর্ববর্তী ঠিকানা ,বর্তমান ঠিকানা ,বিভাগ, জেলা দিন । তারপর আপনার মোবাইল নাম্বার এ আসা ৬ সংখ্যা কোডটি লিখুন এবং “Nid Wallet‘’ নামের একটি অ্যাপ গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করেন । সেখানে নিজের face verification করুন এবং ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করুন। বিষয় গুলো খুব জটিল মনে হচ্ছে তাই না ?সমস্যা নাই আপনাদের সুবিধার জন্য প্রতিটি বিষয় নিম্নে বিস্তারিত বর্ণনা করা হলো সাথে ছবি দেওয়া হলো যাতে আপনারা খুব সহজেই আপনার ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারেন।

কিভাবে Nid Card Download করবেন

আপনার National Id Card online copy ডাউনলোড করতে হলে এ ভিজিট করুন https://services.nidw.gov.bd/nid-pub এই ওয়েবসাইট এ । সেখানে ফর্ম নাম্বার , জন্ম তারিখ ,সিকিউরিটি কোড দিয়ে অ্যাকাউন্ট খুলুন। তারপর সকল ইনফর্মেশন দেন

Nid Card Download
Nid Card Download


ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড এর জন্য জা প্রয়োজন


স্লিপ দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড
স্লিপ দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

  

  • Nid Card Number/ফর্ম নাম্বার/ স্লিপ নাম্বার
  •  ভোটার আইডি কার্ড রেজিস্ট্রেশন এর সময়    ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বার(নাম্বার ভুলে গেলেও নাম্বার  পরিবর্তন করুন অপশন থেকে নাম্বার পরিবর্তন করা যাবে)।
  •  ভোটার আইডি যিনার নামে আছে
  • জন্ম তারিখ (দিন,মাস,বছর)
  • ঠিকানা (উপজেলা ,জেলা, বিভাগ)

 

Nid Card এর জন্য একাউন্ট     

প্রথমে https://services.nidw.gov.bd/nid-pub website এ প্রবেশ করুন । তারপর ছবিতে নির্দেশিত ‘’রেজিস্ট্রার করুন‘’ বাটন এ ক্লিক করেন । রেজিস্ট্রার বাটন এ কিক্ল করার পর nid card number/ স্লিপ number এর জাইগাই nid card number/ স্লিপ number টি দিন অথবা আপনার যদি ভোটার আইডি কার্ডের নাম্বার থাকে তাহলে সেটি দিন । তারপর জন্ম তারিখ আর জাইগাই ভোটার কার্ড অনুযায়ী আপনার জন্ম তারিখ দিন (দিন, মাস, বছর)। ওয়েবসাইটের ক্যাপ্চা টি পূরণ করুন ।তারপর ‘’সাবমিট‘’ বাটন এ ক্লিক করেন। আপনার সকল তথ্য সঠিক থাকলে পরবর্তী পেজে নিয়ে যাবে। সেখানে আপনার বর্তমান ঠিকানা ও স্থায়ী ঠিকানা দিন।

জাতীয় পরিচয় পত্র
জাতীয় পরিচয় পত্র

বর্তমান ঠিকানা ও স্থায়ী ঠিকানা

বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানার জাইগায় আপনার বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা দিতে হবে। মনে রাখবেন আপনি ভোটার আইডি কার্ড রেজিস্ট্রিশন করার সময় বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা যা দিয়েছিলেন ঠিক একই ঠিকানা দিতে হবে নতুবা আপনি আপনার অনলাইন Nid Card Download করতে পারবেন না। তাই খুব সর্তকভাবে সব তথ্য দিন। বর্তমান ঠিকানার জাইগায় আপনি আপনার উপজেলা, জেলা, বিভাগ দিবেন। ঠিক একই ভাবে স্থায়ী ঠিকানার জাইগায় আপনি আপনার উপজেলা, জেলা, বিভাগ দিবেন। কখনও ভুল ঠিকানা দিয়ে পরবর্তী বাটন এ ক্লিক করবেন না। পরপর দুইবার যদি ভুল ঠিকানা দিয়ে সাবমিট করেন তাহলে আপনার একাউন্টি Lock হয়ে যাবে। যার ফলে আপনি ভোগান্তিতে পড়তে পারেন। এর পর পরবর্তী বাটনে ক্লিক করবেন। আপনার বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা যদি ঠিক থাকে তাহলে আপনাকে পরবর্তী পেজে নিয়ে যাবে । সেখানে মোবাইল এ Verification কোড আসবে । 

National Id Card download
National Id Card download



OTP সাবমিট।

পরবর্তী বাটনে ক্লিক করার পর আপনি OTP এর জন্য ভোটার আইডি কার্ড রেজিস্ট্রেশন করার সময় যে ফোন নাম্বার দিয়েছিলেন সেটাই দেখতে পাবেন। তারপর বার্তা পাঠান বাটানে ক্লিক করলে আপনার কাছে ৬ ডিজিটের একটি ওটিপি কোড আসবে। ৬০ সেকেন্ডের মধ্যে ৬ ডিজিটের কোডটি বসিয়ে সাবমিট করেন। যদি ওটিপি আসতে দেরি হয় অথবা ওটিপি না আসে তাহলে "পুনরায় পাঠান " বাটনে ক্লিক করুন দিয়ে ওটিপি সাবমিট করুন। যদি এমন হয় যে যে নাম্বার আপনি দিয়েছিলেন সেটা বর্তমানে আপনার কাছে নাই বা আপনি ব্যাবহার করছেন না তাহলে "নাম্বার পরিবর্তন এ ক্লিক করে আপনার নতুন নাম্বার দিন। অবশ্যই সঠিক নাম্বার দিবেন কেননা ওই নাম্বারে ওটিপি পাঠানো হবে। নাম্বার দেবার পর বার্তা পাঠান বাটনে ক্লিক করুন। আপনার কাছে আসা ৬ ডিজিটের ওটিপি নাম্বারটি ৬০ সেকেন্ডের মধ্যে সাবমিট করুন। প্রতিক্রিয়া টি সম্পূর্ন করে হলে আপনাকে নির্বাচন কমিশনের অ্যাপস Nid Wallet আপনাকে ডাউনলোড করতে হবে। যেখান থেকে আপনি আপনার ভোটার আইডি কার্ড টি ডাউনলোড করতে পারবেন । চলুন দেখে নি কিভাবে Nid Wallet অ্যাপ টি ডাউনলোড করবেন।


ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড
ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড


Nid Wallet Download.

সর্বপ্রথম আপনি আপনার গুগল প্লে স্টোরে আসবেন। এসে সার্চ করবেন "Nid Wallet’’ বা এই লিঙ্ক  এ ক্লিক করুন।  Click করার পর আপনি অ্যাপসটি ইন্সটল করবেন। এরপর পুনরায় ওয়েবসাইট এ যাবেন । সেখানে আপনি Tap to Nid Wallet নামের একটি option পাবেন। আপনি Tap to Nid Wallet অপশনটিতে ক্লিক করুন। ক্লিক করলে আপনি অনেক গুলো অপশন দেখতে পারবেন। যেমন বিভিন্ন ব্রাউজার এবং Nid Wallet অ্যাপ্লিকেশন টি দেখতে পাবেন। আপনি Nid Wallet অ্যাপটিতে ক্লিক করুন। ক্লিক করলে আপনাকে Nid Wallet এর ভিতরে নিয়ে যাবে। তারপর আপনি ভাষা সিলেক্ট করবেন। দিয়ে Agree & Continue অপশন এ ক্লিক করবেন তাহলে আপনি দেখতে পারবেন Start Face Scan নামে একটি অপশন রয়েছে।

 ছবি তুলুন


Agree & Continue তে ক্লিক করার পর আপনারা Start Face Scan এ ক্লিক করবেন। ক্লিক করার পর ছবি তুলার জন্য আপনার কাছে permission চাইবে। আপনি "WHILE USEING THIS APPS" অথবা "ONLIY THIS TIME দুটো অপশনের মধ্যে যেকোনো একটি সিলেক্ট করুন। তবে আপনি ONLIY THIS TIME অপশনটি সিলেক্ট করবেন। সিলেক্ট করার পর আপনার Font Camera চালু হবে এবং আপনাকে ছবি তুলতে বলবে। ছবি তুলার সময় আপনি কয়েকটি বিষয় লক্ষ্য রাখবেন না হলে ছবি উঠবে না। ছবি উঠানোর সময় "প্রথমে আপনি সরাসরি সোজা তাকাবেন তারপর ডান দিকে ঘুরবেন তারপর বাঁ দিকে ঘুরে ছবি তুলবেন। তাহলে সঠিকভাবে আপনার ছবি উঠবে তারপর একটি সবুজ টিক উঠবে। আপনারা OK তে ক্লিক করে সামনে এগিয়ে যাবেন।


Nid Card Download

Ok তে ক্লিক করার পর আপনি আপনার নাম ও ভোটার কার্ড এ আপনার ছবি দেখতে পাবেন। Nid Online copy ডাউনলোড করতে একটু নিচের দিকে আসুন। সেখানে দেখতে পাবেন "পাসওয়ার্ড সেট করুন ও "এড়িয়ে যান" দুইটি অপশন। আপনি চাইলে পাসওয়ার্ড সেট করতে পারবেন এতে করে পরবর্তীতে যদি আপনার এনআইডি কার্ডটি ডাউনলোড করার প্রয়োজন পরে তাহলে স্লিপ নাম্বার আর পাসওয়ার্ড দেওয়ার মাধ্যমে আপনি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র ২০২৪ ডাউনলোড করতে পারবেন। আর যদি আপনি পাসওয়ার্ড সেট করতে না চান তাহলে এড়িয়ে যান অপশন এ ক্লিক করুন। এড়িয়ে যান বাটনে ক্লিক করার পর একটু নিচের দিকে আপনি অনেক গুলো অপশন দেখতে পাবেন। সেখান থেকে ডাউনলোড অপশন এ ক্লিক করুন। তাহলে আপনার নতুন ভোটার আইডি কার্ডটি পিডিএফ আকারে ডাউনলোড করতে পারবেন। কম্পিউটার দোকান থেকে আপনার Nid card প্রিন্ট করলেই আপনি আপনার ভোটার কার্ডটি হাতে পেয়ে যাবেন।

 

কিছু কথা

অনেক সময় দেখা যায় সঠিক ভাবে স্লিপ নাম্বার, জন্ম তারিখ (দিন, মাস,বছর) ও ক্যাপচা পূরন করার পরও পরবর্তী পেজে নিয়ে যায় না। এই রকম সমস্যা হলে আপনি আপনার স্লিপ নাম্বার বা ফর্ম নাম্বার এর আগে NIDFN লিখুন। যেমন NIDFN896Gxxxxxxxx। তাহলে আশা করছি আপনার সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে ।

আপনারা যদি হারানো পুরাতন ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে চান তাহলে ঠিক একইভাবে স্লিপ নাম্বার এর জাইগায় আপনার ভোটার আইডি কার্ড এর নাম্বার দিন। এর পর বাকি তথ্য গুলো সঠিক পূরন করুন। এবং উপরের নিয়ম অনুযায়ী ডাউনলোড করুন।

আমাদের আর্টিকেল টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন আপনার পরিচিত দের মাঝে। আর কোনো প্রশ্ন থাকলে আমাদের ফেসবুক পেজে করতে পারেন।

Please Follow Our Facebook Page : বিশ্ব কারেন্ট টাইম্‌স.

Please Follow Google News : Follow

Please Follow Our Website : TechZone BD

ই পাসপোর্ট আবেদন

জমির খতিয়ান  বের করা

অপরিচিতা গল্পের mcq 


এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

টেক জোন বিডির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url